ফুটবল
Trending

সর্বকালের সেরা ফুটবলারের তালিকা ( ১৯৩০-২০২৩ )

সর্বকালের সেরা ফুটবলার কে বা সর্বকালের সেরা ফুটবলারের তালিকা এমন প্রশ্ন প্রায় সব ফুটবল প্রেমীদের মনে একরার হলেও আসে। একজন খেলোয়ারের সকল দিক বিবেচনা করে এই সকল তথ্য প্রকাশ করা হয়। তাহলে চলুন দেখে আসি সর্বকালের সেরা ফুটবলারের তালিকা এবং কি কারনে তাদেরকে এই উপাধিগুলো দেওয়া হয়েছে।

সর্বকালের সেরা ফুটবলারের তালিকা ফুটবল ইতিহাসের সর্বকালের সেরা খেলোয়াড়
সর্বকালের সেরা ফুটবলারের তালিকা ফুটবল ইতিহাসের সর্বকালের সেরা খেলোয়াড়

সর্বকালের সেরা ফুটবলারের তালিকা

১. পেলে (Pelé), ২. দিয়েগো মারাদোনা (Diego Maradona), ৩. লিওনেল মেসি (Lionel Messi), ৪. ক্রিস্তিয়ানো রোনালদো (Cristiano Ronaldo), ৫. জিনেদিন জিদান (Zinedine Zidane), ৬. গ্যারিঞ্চা ( Garrincha ) , ৭. আলফ্রেদো দি স্তেফানো (Alfredo Di Stéfano) ৮. রোনালদো (Ronaldo) ৯. ইয়োহান ক্রুইফ (Johan Cruyff)  ১০. মিশেল প্লাতিনি (Michel Platini).

পেলে (Pelé) সর্বকালের সেরা ফুটবলার

পুরো নাম এদসোঁ আরাঁচ দু নাসিমেঁতু ( পেলে ) ২৩শে অক্টোবার ১৯৪০ সালে ত্রেস কোরাকোয়েস, ব্রাজিলে জন্ম গ্রহন করা পেলেকে সর্বকালের সেরা ফুটবলার বলা হয়। ৫ফুট ৮ ইঞ্চির উচ্চতার পেলে মাঠে নামলেই যেন কয়েক গুন বড় হয়ে যেতেন। ৭ই জুলাই, ১৯৫৭ সাল আর্জেন্টিনার বিপক্ষে প্রথম ব্যাচ খেলেন এদসোঁ আরাঁচ দু নাসিমেঁতু ( পেলে )। প্রথম ম্যাচে ১-২ গোল ব্যাবধানে হারলেও সেদিন সর্বকনিষ্ঠ গোলদাতার স্থান দখল করে নেয় পেলে। ব্রাজিলের ফরোয়ার্ড অ্যাটাকিং মিডফিল্ডার হিসেবা খেলা পেলে জাতীয় দলের হয়ে ৯২ ম্যাচ খেলে গোল করেন ৭৭টি। যা ব্রাজিলের হয়ে সর্বোচ্চ গোল করার রেকর্ড হয়ে আছে। পেলে তার ক্যারিয়ারে সর্বমোট ১৩৬৩ ম্যাচ খেলে গোল করেন ১২৮১টি।

বিশ্বকাপে পেলের গোল সংখ্যা

বিশ্বকাপের ৪টি আসরে অংশগ্রহণ করা পেলে মোট ম্যাচ খেলেছে ১৪টি। এই ১৪টি ম্যাচে গোল করেছেন সর্বমোট ১২টি। ফুটবল ইতিহাসে পেলেই একমাত্র যিনি একাই ৩টি বিশ্বকাপ জয়ের স্বাদ পেয়েছেন। পেলে তার ক্যারিয়ারে এমন সব অনন্য প্রতিভার কারনে পেলেকে সর্বকালের সেরা ফুটবলারের তালিকার প্রথম স্থানে রাখা হয়েছে।

বিশ্বকাপমোট ম্যাচগোলফলাফল
সুইডেন বিশ্বকাপ ১৯৫৮চ্যাম্পিয়ান
চিলি বিশ্বকাপ ১৯৬২চ্যাম্পিয়ান
ইংল্যান্ড বিশ্বকাপ ১৯৬৬১১ তম
মেক্সিকো বিশ্বকাপ ১৯৭০চ্যাম্পিয়ান
সর্বমোট ৪ বিশ্বকাপ১৪ টি১২টি৩বার চ্যাম্পিয়ান

দ্বিতীয় সর্বকালের সেরা ফুটবলার দিয়েগো মারাদোনা

মারাদোনার পুরো নাম দিয়েগো আর্মান্দো মারাদোনা। আর্জেন্টিনার বুয়েনোস আইরেসর, লানুসে ১৯৬০ সালের ৩০শে অক্টোবার জন্মগ্রহন করেন আর্জেন্টিনার সর্ব কালের সর্বশ্রেষ্ঠ এই ফুটবলার। ৫ ফুট ৫ ইঞ্চি উচ্চতার এই ফুটবলারকে ফুটবলের ক্ষুদে জাদুকার বলা হয়। ২৭ শে ফেব্রুয়ারি ১৯৭৭ সালে হাঙ্গেরির বিপক্ষে বয়স ভিত্তিক এই ম্যাচের মাধ্যমে আন্তর্জাতিক ক্যারিয়ারের অভিষেক ঘটে। ১৯৭৭ থেকে ১৯৯৪ সাল পর্যন্ত আর্জেন্টিনার জার্সিতে ৯১টি ম্যাচ খেলে গোল করেছিলেন ৩৪টি যা আর্জেন্টিনার হয়ে পঞ্চম সর্বোচ্চ। তাছাড়া দিয়েগো মারাদোনা বিভিন্ন সমায়ে ক্লাবের হয়ে মোট ৪৯১টি ম্যাচ খেলে গোল করেছিলেন ২৫৯টি।

বিশ্বকাপে মারাদোনার গোল সংখ্যা

দিয়েগো মারাদোনা আর্জেন্টিনার হয়ে প্রথম বিশ্বকাপ খেলে ১৯৮২ সালে। প্রথম বিশ্বকাপে মারাদোনা ৫টি ম্যাচ খেলে গোল করেন ২টি। ১৯৮৬ সালে মেক্সিকো বিশ্বকাপে মারাদোনা ৭টি ম্যাচ খেলে গোল করেন ৫টি। ১৯৮৬ সালে আর্জেন্টিনাকে বিশ্বকাপ জেতাতে সবচেয়ে বড় ভূমিকা রাখেন এই আর্জেন্টাইন সুপার স্টার। দিয়েগো মারাদোনা আর্জেন্টিনার হয়ে মাত্র একটি বিশ্বকাপ জিতলেও তার শৈল্পিক ফুটবল নৈপুন্যতাই মুগ্ধ হয়েছিলেন সারা বিশ্বের কোটি কোটি ফুটবল প্রেমী।

বিশ্বকাপমোট ম্যাচগোলফলাফল
স্পেন বিশ্বকাপ ১৯৮২১০ তম
মেক্সিকো বিশ্বকাপ ১৯৮৬চ্যাম্পিয়ান
ইতালি বিশ্বকাপ ১৯৯০রানার আপ
যুক্তরাষ্ট্র বিশ্বকাপ ১৯৯৪১০ তম
সর্বমোট ৪ বিশ্বকাপ২১ টি৮টি১বার চ্যাম্পিয়ান

 

তৃতীয় সর্বকালের সেরা ফুটবলার লিওনেল মেসি (Lionel Messi)

লিওনেল মেসির পুরো নাম লিওনেল আন্দ্রেস মেসি। আর্জেন্টিনার রোসারিওতে ১৯৮৭ সালে ২৪শে জুন জন্ম গ্রহন করেন আর্জেন্টাইন এই সুপার স্টার। লিওনেল মেসি জাতীয় দলের হয়ে আর্জেন্টিনার জার্সিতে প্রথম ম্যাচ খেলে ১৭ই আগোস্ট ২০০৫ সালে হাঙ্গেরির বিপক্ষে। সেই ম্যাচে আর্জেন্টিনা হাঙ্গেরির সাথে জয়লাভ করে ২-১ গোল ব্যাবধানে। তার পর থেকে এখনও পর্যন্ত লিওনেল মেসি আর্জেন্টিনার হয়ে ১৭৬টি আন্তর্জাতিক ম্যাচ খেলে গোল করেছেন ১০৪টি। ( সর্বশেষ আপডেট )

মেসি তার ফুটবল ক্যারিয়ারে ( ক্লাব এবং জাতীয় দল ) এখনো পর্যন্ত ১০৬২ ম্যাচে গোল করেছে ৮২৫টি। মেসি তার ফুটবল যাত্রা শুরু করে ইউরোপিয়ান ক্লাব বার্সেলোনা হয়ে। বার্সেলোনায় থাকতে ( ২০০৫-২০২0 )  মেসি ৭৭৮টি ম্যাচ খেলে গোল করেছিলেন ৬৭২টি। লিওনেল মেসির বর্তমান ক্লাব ইন্টার মায়ামি। পিএসজি-র হয়ে ৭৫ ম্যাচে গোল করেছেন ৩২টি। এছাড়া মেসি তার ফুটবল ক্যারিয়ারে ৭বার ২০০৯, ২০১০, ২০১১, ২০১২, ২০১৫, ২০১৯, ২০২১ ) ব্যালন ডি অর জয়লাভ করেছে। ফুটবলের এমন সব নৈপুন্যতাই কারনেই লিওনেল মেসিকে সর্বকালের সেরা ফুটবলারের তালিকায় রাখা হয়েছে।

বিশ্বকাপে মেসির গোল সংখ্যা

লিওনেল মেসি প্রথম বিশ্বকাপ খেলে ২০০৬ সালে। প্রথম বিশ্বকাপে ৩ম্যাচ খেলে গোল করেন ১টি। সেবার আর্জেন্টিনা বিশ্বকাপের ৬ম তম অবস্থানে যেতে সক্ষম হয়। এর পর ২০১০ বিশ্বকাপে লিওনেল মেসি ৫টি ম্যাচ খেলে একটি গোলও করতে পারেনি। তার পরেও দল ৫ম তম অবস্থানে আসতে সক্ষম হয়। পরবর্তীতে ২০১৪ সালে ব্রাজিল বিশ্বকাপে আর্জেন্টিনার হয়ে ৭ ম্যাচ খেলে গোল করেন ৪টি। তাতেই দলকে সর্বোচ্চ স্থানে নিতে সক্ষম হয়। অর্থাৎ দল রানার আপ হয়।

২০১৮ সালে রাশিয়া বিশ্বকাপে ৪ ম্যাচ খেলে গোল করেন ১টি দল হয় ১৬তম। কাতার বিশ্বকা ২০২২ এ  ৭টি ম্যাচ খেলে গোল করেন ৭টি। দলকে করে দেয় ২০২২ কাতার বিশ্বকাপের চাম্পিয়ান হওয়ার গৌরব। যার কারনে লিওনেল মেসিকে সর্বকালের সেরা ফুটবলারের বলা হচ্ছে।

বিশ্বকাপমোট ম্যাচগোলফলাফল
জার্মানি বিশ্বকাপ ২০০৬৬ তম
সাউথ আফ্রিকা বিশ্বকাপ ২০১০৫ম
ব্রাজিল বিশ্বকাপ ২০১৪রানার আপ
রাশিয়া বিশ্বকাপ ২০১৮১৬ তম
কাতার বিশ্বকাপ ২০২২চ্যাম্পিয়ান
সর্বমোট ৫ বিশ্বকাপ২৬ টি১৩টি

চতুর্থ সর্বকালের সেরা ফুটবলার ক্রিস্তিয়ানো রোনালদো

ক্রিস্তিয়ানো রোনালদো, পর্তুগালের সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ এই ফুটবলার জন্ম গ্রহন করেন পর্তুগালের ফুনচাল শহরে ৫ই ফেব্রুয়ারি, ১৯৮৫ সালে। ৬ ফুট ২ ইঞ্চি উচ্চতার এই পর্তুগিজ তারকা বিভিন্ন ক্লাবের হয়ে মোট ৯৭৩টি ম্যাচ খেলে গোল করেছেন ৭২১টি। ক্লাবের হয়ে ক্রিস্তিয়ানো রোনালদোর অভিষেক ঘটে ( ২০০৩-০৪ ) ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডর হয়ে।

ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডর জার্সিতে দীর্ঘ ৬বছরের ক্যারিয়ারে মোট ৩৪৬টি ম্যাচ খেলে গোল করেন ১৪৫টি। এর পর ২০০৯ সালে স্পেনের ক্লাব রিয়াল মাদ্রিদের সাথে চুক্তিবদ্ধ হন তিনি। রিয়াল মাদ্রিদে থাকাকালীন ক্রিস্তিয়ানো রোনালদো তার ফুটবল ক্যারিয়ারে সর্বোচ্চ সাফল্য অর্জন করেন। রিয়াল মাদ্রিদে তিনি ২০১৮ সাল পর্যন্ত খেলে ৪৩৮টি ম্যাচ খেলে গোল করেন ৪৫০টি। মাঝে জুভেন্টাসের হয়ে ১৩৪ ম্যাচে করেন ১০১টি গোল। বর্তমানে ক্রিস্তিয়ানো রোনালদো চুক্তিবদ্ধ হয়েছেন সৌদি আরবের ক্লাব আল নাসরে। আল নাসরে এখনও পর্যন্ত ২৪ ম্যাচে ২০ গোল ৭ এসিস্ট অর্জন করতে সক্ষম হয়েছে এই সেরা খেলোয়াড়।

ক্রিস্তিয়ানো রোনালদো পর্তুগালের জাতীয় দলের হয়ে ২০১ম্যাচে ১২৩গোল করেন। যা জাতীয় দলের হয়ে ক্রিস্তিয়ানো রোনালদো বিশ্বের সর্বোচ্চ গোলদাতা।

ক্রিস্তিয়ানো রোনালদো ব্যালন ডি অর জয় করেছে ৫বার ( ২০০৮, ২০১৩, ২০১৪, ২০১৬, ২০১৭) সালে। লিওনেল মেসির পরে সর্বোচ্চ ব্যালন ডি অর জয়ী ফুটবলার ক্রিস্তিয়ানো রোনালদো। ফুটবলের এমন সব নৈপুন্যতাই কারনেই ক্রিস্তিয়ানো রোনালদোকে সর্বকালের সেরা ফুটবলারের সংক্ষিপ্ত তালিকায় বিবেচনা করা হয়েছে।

বিশ্বকাপে রোনালদোর গোল সংখ্যা

ক্রিস্তিয়ানো রোনালদো পর্তুগালের হয়ে প্রথম বিশ্বকাপ খেলে ২০০৬ সালে। তার খেলে প্রথম বিশ্বকাপে সর্বমোট ৬টি ম্যাচ খেলে গোল করেন ১টি। পর্তুগাল ওই বিশ্বকাপে ( সর্বোচ্চ সাফল্য ) সেমিফাইনাল ফাইনাল খেলার যোগ্যতা অর্জন করে। তার পরে ক্রিস্তিয়ানো রোনালদো সর্বমোট ৫টি বিশ্বকাপ খেল্লেও ২০১৮ সালে রাশিয়া বিশ্বকাপে ব্যাক্তিগত সর্বোচ্চ  সাফল্য অর্জন করে। রাশিয়া বিশ্বকাপে ক্রিস্তিয়ানো রোনালদো ৪ ম্যাচ খেলে গোল করেন ৪টি। বিশ্বকাপে ক্রিস্তিয়ানো রোনালদো মোট ২০টি ম্যাচ খেলে গোল করেছেন ৮টি।

বিশ্বকাপমোট ম্যাচগোলফলাফল
জার্মানি বিশ্বকাপ ২০০৬৪র্থ
সাউথ আফ্রিকা বিশ্বকাপ ২০১০১১তম
ব্রাজিল বিশ্বকাপ ২০১৪১৮তম
রাশিয়া বিশ্বকাপ ২০১৮১৩ তম
কাতার বিশ্বকাপ ২০২২৮ম
সর্বমোট ৫ বিশ্বকাপ২০ টি৮টি

 

পঞ্চম সর্বকালের সেরা ফুটবলার জিনেদিন জিদান

জিনেদিন জিদানের পুরো নাম জিনেদিন ইয়াজিদ জিদান। ২৩ জুন ১৯৭২ সালে ফ্রান্সের মার্সেই শহরে জন্মগ্রহন করেন সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ এই মিড ফিল্ডার। ফ্রান্সের মুসলিম পরিবারে জন্মগ্রহন করা এই মিড ফিল্ডার বিভিন্ন সমায়ে বিতর্কিত হলেও ফুটবলে তার অসামান্য নৈপুন্যতার জন্য ফুটবল বিশ্ব তাকে সর্বকালের সেরা ফুটবলারের তালিকায় নিবেচনা করে থাকে। ১৯৮২ সালে মাত্র ১০ বছর বয়েসে ফ্রান্সের ফুটবল ক্লাব ফোরেস্তারার সাথে চুক্তিবদ্ধের মাধ্যমে ফুটবল ক্যারিয়ার শুরু করেন জিদান।

জিনেদিন জিদান তার ক্লাব ক্যারিয়ারে একজন মিড ফিল্ডার হয়েও ৫০৬ ম্যাচ খেলে গোল করেন ৯৫টি। এছাড়াও ফ্রান্সের জাতীয় দলের হয়ে ১০৮ম্যাচে গোল করেন ৩১টি। জিনেদিন জিদান ১৯৯৮ সালে ব্যালন ডি অর জয়লাভ করেন। একজন দিদ ফিল্ডার হয়েও এতো সব অর্জনের কারনে জিনেদিন জিদানকে সর্বকালের সেরা ফুটবলারের তালিকা য় রেখে থাকে।

আরো পড়ুন: দাবা খেলার নিয়ম কানুন ও সূত্র

জিনেদিন জিদানের বিশ্বকাপে গোল সংখ্যা

জিনেদিন জিদান সর্বমোট ৩টি বিশ্বকাপে অংশগ্রহণ করে ১২টি ম্যাচ খেলে গোল করেন ৫টি। জিনেদিন জিদান প্রথম ফুটবল বিশ্বকাপ খেলে ১৯৯৮ সালে। প্রথম বিশ্বকাপে ৫ ম্যাচ খেলে ২ গোল করেন। সেবার ফ্রান্স চ্যাম্পিয়ান হয়। তাছাড়া ২০০৬ বিশ্বকাপে ৬টি ম্যাচ খেলে গোল করেন ৬টি। দল হয় রানার আপ।

বিশ্বকাপমোট ম্যাচগোলফলাফল
ফ্রান্স বিশ্বকাপ ১৯৯৮চাম্পিয়ান
জাপান / কোরিয়া বিশ্বকাপ ২০০২২৮তম
জার্মানি বিশ্বকাপ ২০০৬রানার আপ
সর্বমোট ৫ বিশ্বকাপ১২ ম্যাচ৫টি

 

৬. আলফ্রেদো দি স্তেফানো (Alfredo Di Stéfano)

৭. গ্যারিঞ্চা ( Garrincha )

৮. রোনালদো (Ronaldo)

৯. ইয়োহান ক্রুইফ (Johan Cruyff)

১০. মিশেল প্লাতিনি (Michel Platini)

(সবার আগে সব খবর প্রতি মুহূর্তে পেতে ফলো করুন আমাদের Google News পেজ)

4.6/5 - (158 votes)

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button